খাওয়ার আদব বা ইসলামিক নিয়ম | আঙুল চেটে খাবার খাওয়া:


আঙুল চেটে খাবার খাওয়া: খাওয়ার আদব বা ইসলামিক নিয়ম



কা’ব বিন মালিক (রা.) বলেন, ‘‘আমি রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে তিন আঙুলে (বুড়ো, শাহাদাতি এবং মধ্যমা) আহার করতে দেখেছি এবং তিনি আহার শেষে আঙুল চেটেছেন।’’ [সহিহ মুসলিম, রিয়াদুস সালেহিন: ৭৪৯]
.
উল্লেখ্য, রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এবং আরবের লোকজন ফলমুল বা রুটিজাতীয় খাবার খেতেন, ফলে খাবারে পাঁচ আঙুল ব্যবহারের প্রয়োজন হতো না। কিন্তু আমাদের প্রধান খাদ্য ভাত-মাছ; তাই আমাদের পক্ষে তিন আঙুলে খাওয়া বেশ কষ্টসাধ্য। তাই, আমরা পাঁচ আঙুলে খাই। এতে কোনো সমস্যা নেই। তবে আমরাও যদি রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুকরণে এবং তাঁকে ভালোবেসে ফলমুলজাতীয় খাবার খাওয়ার সময় তিন আঙুল ব্যবহার করি, তবে সওয়াব পাব ইনশাআল্লাহ্। আর যেকোনো খাবার আঙুল দিয়ে চেটে খাব ইনশাআল্লাহ্। কারণ রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘‘তোমাদের জানা নেই, তোমাদের খাবারের কোন অংশে বরকত নিহিত রয়েছে।’’ [সহিহ মুসলিম, রিয়াদুস সালেহিন: ৭৫৩]
.
এই ধরনের সুন্নাতগুলো উম্মতের উপর বাধ্যতামূলক নয়, তবে কেউ যদি প্রিয় নবী মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে ভালোবেসে এগুলোর উপর আমল করে, তবে সে অনেক নেকি ও মর্যাদার অধিকারী হবে। রাসূলের সুন্নাতকে ভালোবাসা মানে রাসূলকে ভালোবাসা। আমরা কেউ জানি না, আমাদের কোন আমলটি আল্লাহ্ পছন্দ করেন। তাই, সাধ্যানুযায়ী নেক আমল করতে চেষ্টা করি।
.
#Tasbeeh


- আমাদের মাঝে অনেক মুসলিম ভাই ই সুন্নাহ মেনে আঙ্গুল চেটে খায়, তা দেখে আবার অনেক অজ্ঞ বা জাহেল বা মোডারেট মুসলিম টিটকারি করে!!! যা খুবই দুঃখ জনক ও বাজে স্বভাবের কাজ।

 মুসলিম ঐ ভাই ও চাইলে মোডারেট কিংবা অবুঝ মুসলিমদের মত প্লেটে খাবার রেখে অপচয় করেই উঠে পড়তে পারে, কিন্তু তারা তা করেনা কেননা তা সুন্নতের খেলাপ ও অপচয় এর মধ্যে পড়ে।

আল্লাহ্‌ অপচয়কারিকে পছন্দ করেন না।


তাই যেসব ভাইয়েরা অন্যদের টিটকারি করেন জেনে বা না জেনে তারা আজকে থেকে তা বন্ধ করুন প্লিজ।

আলগা ভাব দেখিয়ে অর্ধেক খাবার রেখে উঠে পড়ার মধ্যে কোন বীরত্ব নেই, মূর্খতা আছে। 
- এডমিন 
Powered by Blogger.