চা বানানোর নিয়ম - চা রেসিপি ১০১ : লেবু, মসলা, দুধ ও আদা চা ইত্যাদি

চা রেসিপি ১০১ বলতে বুঝাতে চেয়েছি এক পোস্টে হরেক রকমের চা বানানোর নিয়ম বা রেসিপি পাবেন। কিছু কিছু চা অপরিচিতও মনে হতে পারে। যেমন আইচ টি! আপনারা কখনও এর নাম শুনে থাকলেও আমার কাছে এটা বেশ নতুন। এই কিছুদিন আগেই জানলাম বরফ দিয়েও চা খায় মানুষ!! 

যা যা পাবেন পোস্টেঃ
  1. মসলা / মশলা চা বানানোর নিয়ম
  2. চা বানানোর সঠিক নিয়ম
  3. লেবু চা বানানোর নিয়ম
  4. বিভিন্ন ধরনের চা এর রেসিপি
  5. আদা চা বানানোর নিয়ম
  6. চা বানানোর সঠিক পদ্ধতি
  7. দুধ চা বানানোর সঠিক পদ্ধতি

চা পাতার গ্রেড 

ভালো চা বানানোর জন্য দরকার ভালো মানের চা পাতা। আপনি কিভাবে ভালো মানের চা পাতা চিনবেন?  

আসলে চা পাতার অনেক গুল গ্রেড আছে। BOP, OP, FD, এমন আরো অনেক গ্রেডে চা পাতা ভাগ করা হয়। আমাদের দেশে যেসব চা পাতা বিক্রি হয় সেগুলোর বেশির ভাগই নরমাল গ্রেডের চা পাতা।

আমি ব্যক্তিগত ভাবে বলবো কম দামের মধ্যে ভালো মানের চা চাইলে BOP গ্রেডের চা পাতা কিনে দেখুন। এগুলো আকারে একটু বড় বড় গুটী গুটি হবে। 
একবার এই গ্রেডের চা পান করে দেখতে পারেন। 



আর যারা আরো দাম দিয়ে চা পাতা কিনতে পারবেন তাদের জন্য তো টপ গ্রেডের চা পাতা আছেই। 

একটা মজার তথ্য জানিয়ে রাখি। ছোট ছোট প্যাকেটে যেসব চা পাতা সেল হয় সেগুলো হলো ডাস্ট গ্রেডের চা পাতা। মানে একদম নিচু গ্রেডের। মূল চা পাতা প্রস্তুত করার সময় ধুলার মত মিহি হয়ে কারখানায় পড়ে থাকে যেগুলো সেগুলো কে খোলা সেল করা যাবে না তাই ছোট ছোট প্যাকেটে সেল করে।
মজার ব্যাপার হলো আমি ছোট বেলায় এমন চা পাতার প্যাকেট গুলোকেই ভাবতাম আহা বড়লোকদের দামি চা পাতা!! 

চা পাতা নিয়ে কথা আপাতত অফ। এখন রেসিপির পালা। 

পারফেক্ট দুধ চা ও মালাই চা তৈরির রেসিপি।

চা সবাই তৈরি করতে পারেন। তবে কিছু কিছু ভুলের কারণে চা খেতে রেস্টুরেন্টের মতো হয় না। যারা রেস্টুরেন্টের চা একবার খেয়েছেন তারা সেই স্বাদ কখনো ভুলতে পারবেন না। সকাল বা বিকেল বেলা চা ছাড়া চলেই না তখন এক কাপ চা চাই-ই চাই। তাই এখন কয়েকটি চা তৈরির পদ্ধতি দেখে নিন -
গুঁড়ো দুধের চা - উপকরণঃ
  • (২ কাপ চায়ের জন্য) ২ কাপ পানি,
  • হাফ কাপ পরিমাণ দুধ,
  • সাদা এলাচ ২ টি,
  • লং ২ টি,
  • চিনি ৩ টেবিল চামচ।
প্রাণালীঃ
চা তৈরি করার জন্য প্রথমে দুধ তৈরি করে নিতে হবে। তাই এক কাপ পানিতে (নরমাল পানিতে দুধ গুলিয়ে নিতে হবে কারন গরম পানিতে দিলে দলা বেঁধে যেতে পারে) হাফ কাপ পরিমাণ দুধ মিশিয়ে নিবেন। একটি প্যানে ২ কাপ পানি দিয়ে দিবেন (২ কাপ পানিতে ২ কাপ চা হবে) তবে চাইলে আরও বেশি পানি নিতে পারেন। এবার আদা কুঁচি , ২ টি সাদা এলাচ, ২ টি লং, ৩ টেবিল চামচ চিনি দিয়ে দিবেন। এরপর পানিটা ৫ মিনিটের মতো ফুটিয়ে ২ টেবিল চামচের মতো চা পাতা দিবেন।

তারপর দুধ দিয়ে দিবেন এবং ৫ মিনিট জ্বাল দিতে হবে। মাঝে মাঝে একটু নেড়ে দিবেন এতে চা অনেক ঘন হবে এবং কালাও পরিবর্তন হবে। এভাবেই পারফেক্ট ও মজাদার চা তৈরি করতে পারবেন। তবে ৫ মিনিটের বেশি চা জ্বাল দিবেন না, খেতে তেঁতো লাগতে পারে। চা পাতা দেওয়ার কারনে বা কিছু কিছু ভূলের কারনে চা পাতলা হয়ে যায়। যে কারণে চা খেতে ভালো লাগে না।

গরুর দুধ দিয়ে মালাই চা - উপকরণঃ

  • গরুর দুধ ১ কাপ পরিমাণ,
  • চা পাতা ১ চা চামচ,
  • মিক্ল মেরী বিস্কুট ৩ পিস,
  • চিনি ১ টেবিল চামচ,
  • ডিমের হলুদ অংশ।
প্রাণালীঃ
— প্রথমে বিস্কুট গুলো পানিতে ভিজিয়ে নিবেন। এরপর পানি ও বিস্কুট ভালো করে মিশিয়ে ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে নিবেন। এর সঙ্গে ডিমের কুসুম ও দিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে। একটি প্যানে ১ কাপ পরিমাণ গরুর দুধ, ১ টেবিল চামচ পরিমাণ চিনি, ১ চা চামচ পরিমান চা-পাতা দিবেন। এবার ৭ – ৮ মিনিট জ্বাল দিয়ে ডিমের কুসুম মিশ্রিত পানি দিয়ে এগুলো মিশিয়ে নিবেন (যেহেতু ডিমের কাঁচা কুসুম দেওয়া হয়েছে তাই অবশ্যই মিল্ক মেরী বিস্কুট দিতে হবে নাইলে গন্ধ আসতে পারে)। এ ভাবেই তৈরি হয়ে যাবে বাসায় তৈরি গরুর দুধের মালাই চা। সব শেষে ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে পরিবেষণ করবেন।

কোলকাতা স্টাইলে মসলা দিয়ে দুধ চা

উপকরণঃ
  • এক চামচ চা পাতা,
  • এক কাপ দুধ,
  • পানি হাফ কাপ পরিমাণ,
  • ছোট এক টুকরা আদা,
  • এক টুকরো দারুচিনি এবং দুটো এলাচ,
  • তেজপাতা ১ টি,
  • স্বাদ মতো চিনি।

প্রাণালীঃ
প্রথমে আদা ছেঁচে নিতে হবে (আদার রস বের করার জন্য)। এরপর একটি প্যানে হাফ কাপ পানি এবং এক চামচ চা পাতা দিয়ে দিবেন। ছোট এক পিস দারুচিনি, ১ টি তেজপাতা (ছিঁড়ে দিবেন), ২ টি এলাচ (ফাটিয়ে দিবেন) এর সঙ্গে দিয়ে ২ মিনিট জ্বাল দিবেন। এবার এক কাপ দুধ দিয়ে আরও ২ মিনিট জ্বাল দিতে হবে এবং আদা আর চিনি দিয়ে দিবেন। এভাবেই কিছু সময় অপেক্ষা করলে তৈরি হয়ে যাবে কোলকাতা স্টাইলে মসলা দিয়ে মজাদার দুধ চা। এবার একটি কাপে ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে পরিবেষণ করবেন।
Powered by Blogger.