আজ ভালোবাসা দিবস ২০২২ এর ছবি ডাউনলোড HD

Valentine Day ২০২২ পিকচার ফটো : আজ ভালোবাসা দিবস এর ছবি ডাউনলোড

  1. প্রপোজ দিবস 
  2. ভালবাসা দিবসের কাহিনী 
  3. 14 ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবস 
  4. ভালোবাসা দিবস sms 
  5. ভালবাসা দিবসের উৎপত্তি কিভাবে
  6.  ভালোবাসা দিবসের ছবি ২০২২
  7. ভালোবাসা দিবসের ইতিহাস
  8.  ভালোবাসা দিবস কবে

আজ ভালোবাসা দিবস এর ছবি

আজ ভালোবাসা দিবস ছবি

ভালোবাসা দিবসের ছবি Download

আজ ভালোবাসা দিবস এর ছবি ডাউনলোড

এখানের সব ছবি শুধুমাত্র বৈধ স্বামী স্ত্রীর জন্য। কোন So Called গফ বফ এর জন্য না। তাদের জন্য এইসব ছবি ডাউনলোড করা কিংবা ইউজ করা বৈধ না। আশা করি আপনারা যারা বিবাহিত নন তারা এই পোস্ট এর লেখা পড়ে কিছু জেনে এই হারাম দিবসে আপনার গফ বফ নিয়ে জিনা করা থেকে বিরত থাকবেন।

love picture

ভাই ও বোনেরা আমার, বয়স হলে প্রেম ভালোবাসার জন্য অন্তর আকুপাকু করবেই তাই বলে হারাম জিনায় যাওয়ার দরকার নেই। পারলে বিবাহ করুন আর না পারলে সবুর করুন।
মাত্র আর ৩/৪ বছর পরেই তো আপনারা বিয়ের সামর্থ্য পেয়ে যাবেন ইনশা আল্লাহ্‌।


আরো দেখুনঃ কষ্টের ছন্দ কবিতা 

লাভ লেখা পিকচার

লাভ ছবি love picture


এখান থেকে ভালবাসার পিকচার নিয়ে কোন হারাম কাজে হারাম wish বা যেকোনো হারাম কাজে ইউজ করলে তার দায় আপনার। আমি দায় মুক্ত। 


ভালোবাসা দিবস পিকচার ডাউনলোড

ভালবাসা দিবস পিকচার 2022

রোমান্টিক লাভ পিকচার

ভালবাসা দিবস পিকচার ফটো ২০২২

বাংলাদেশে ভ্যালেন্টাইনস ডে

love ছবি

বাংলাদেশে প্রথম আসে এদেশের খবিশদের নেতা
যায়যায়দিন পত্রিকার সম্পাদক শফিক রেহমান এর মাধ্যমে। এই লোকই বাংলাদেশে সমকামিতা, চটি, অজাচার এর প্রচার প্রসার ঘটানোর পিছনে কাজ করছে।

প্রেমের ছবি

১৯৯৩ সালের দিকে বাংলাদেশে বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের আর্বিভাব ঘটে। যায়যায়দিন পত্রিকার সম্পাদক শফিক রেহমান এর প্রবক্তা। পাশ্চাত্যের প্রভাব নিয়ে দেশে এসে লন্ডনি সংস্কৃতির চর্চা শুরু করেন। লন্ডনি সংস্কৃতি না বলে লন্ডনি অজাচার বলায় ভালো।
তিনি প্রথম যায়যায়দিন পত্রিকার মাধ্যমে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস বাংলাদেশিদের কাছে তুলে ধরেন।

গোলাপ ভালবাসা

প্রেমের ছবি

১৪ ফেব্রুয়ারি খ্রিষ্টান সম্প্রদায় কর্র্তৃক `Saint
Valentine Day'হিসেবে ঘোষণার আগে এ দিনটি
পৌত্তলিক ধর্মীয় উৎসবহিসেবে পালিত হতো। তখন
তারা ফেব্রুয়ারি মাসের ১৩ থেকে ১৫ তারিখ পর্যন্ত
লুপারকেলিয়া উৎসব পালন করত।
ইউরোপ-আমেরিকার বিভিন্ন ``Valentine Day'কার্ডে
Cupid-এর প্রতীক ব্যবহার করাহয়। এ দিনে রোমানদের
আরেকটি উল্লেখযোগ্য কর্মসূচি ছিল, প্রেমের
দেবী জুনুর আশীর্বাদ কামনায় যুবকদের মধ্যে
যুবতীদের বন্টনের জন্য লটারিরআয়োজন। তারাযুবতী
মেয়েদের নামলিখে একটি বাক্সে রাখতএবং
লটারির মাধ্যমে যুবকরা এসে নাম তুলত। লটারিতে
যারসাথে যার নাম উঠত এক বছরের জন্য তারা লিভ
টুগেদার করত। এ ধরনের নানা অনৈতিকতা,
কুসংস্কার ওভ্রান্ত বিশ্বাসে আচ্ছন্ন লটারির
মাধ্যমে যুবতীদের বন্টনের রীতি ফন্সান্স সরকার
১৭৭৬ সালে নিষিদ্ধ করেছিল। ক্রমান্বয়ে এটি
ইতালি, অস্ট্রিয়া, হাঙ্গেরি ও জার্মান থেকেও
উঠে যায়। ইংল্যান্ডেও এক সময় এটি নিষিদ্ধ
করাহয়েছিল।



কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, আধুনিক সভ্যতার এ যুগে
কুসংস্কারাচ্ছন্ ন ভ্রান্ত বিশ্বাসের ওপর প্রতিষ্ঠিত
তথাকথিত প্রেমিক উৎসব চালু হলো কিভাবে? ইস্টার
এ হল্যান্ড নামক এক চতুর কার্ড বিক্রেতা কোম্পানি
প্রথম'What Else Valentine'নামে প্রথম বাণিজ্যিকভাবে
আমেরিকান ভ্যালেন্টাইন ডে কার্ড বানায় এবং
প্রথম বছরই ৫০০০ ডলারেরকার্ড বিক্রি হয়। পরে
সুযোগসìধানীমিডি য়া কোম্পানির পৃষ্ঠপোষকতায়
ভ্যালেন্টাইন ডে ফুলে-ফেঁপে ওঠে।

- Muslim Page

Powered by Blogger.